মশার সাথে সংঘর্ষ মাইক্রোসফটএর

Microsoft collision with mosquitoes,Microsoft collision
Microsoft collision

মশার সাথে সংঘর্ষ মাইক্রোসফটএর:-

জিকা ভাইরাস এবং অন্যান্য রোগ বহনকারী জীবাণু সঙ্গে লড়াই করতে এসেছে মাইক্রোসফট।স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা আশা করেছেন এই জায়ান্ট মাইক্রোসফট মশাবাহিত রোগ চিহ্নিত করতে দ্রুত সাহায্য করবে এবং রোগ গুলো কখন শুরু হয় সে সম্পর্কে অতি সহজে জানা যাবে।হ্যারিস কাউন্টির জনস্বার্থ কার্য নির্বাহী পরিচালক উমাইর শাহ বলেন এই পরীক্ষামূলক মাইক্রোসফ -এর যা করার কথা তা করতে পারলে এটা একটা আসল গেম চেঞ্জার হতে হচ্ছে বিশ্বের দরবারে মশা নিয়ন্ত্রণ কে এগিয়ে দেবে যা আগে কখনো হয়নি 2015 সালে  ইবোলার মাইক্রোসফট গবেষণা ও নতুন এক গবেষণা শুরু করেছেন।



এ প্রকল্পের প্রধান কি ইথান জ্যাকসন এর মতে ইচ্ছাকৃতভাবে নিয়ে আসা কোন সংক্রামক রোগের বিস্তার বন্ধ করতে পারা যায় কিনা তা দেখার জন্য সর্বশেষ প্রযুক্তি ব্যবহার করছে মাইক্রোসফট।

রোগ নিয়ন্ত্রণ কারি  সম্পর্কে:-

১ ফুট লম্বা টিনের তিন পায়ের ওপর বসানো যার মধ্যে আছে ৬৪ টি ঘর এবং কার্বন-ডাই-অক্সাইড যা মশাকে আকর্ষণ করে এটা আমাদের সকলের জানা।মশা ফাঁদে ঢোকার সঙ্গে সঙ্গে অবহেলিত আলো তার ওপর পড়বে। আলোর ওঠানামা পর্যবেক্ষণ করে মাইক্রোসফট গবেষকরা মশার বিভিন্ন জাত চিহ্নিত করতে পারবে। মশা ভিতরে প্রবেশ করার সঙ্গে সঙ্গে তাদের দরজা বন্ধ হয়ে যাবে। 3600 মশা জাতের মধ্যে মুষ্টিমেয় কিছু মশা হল জিকা ডেঙ্গু জ্বর বা ওয়েস্ট লাইন ভাইরাস। এই কাজের জন্য মশার সঙ্গে টক্কর দিতে মাইক্রোসফটকে জন্স হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয় এর উপর নির্ভর করতে হবে প্রথম অবস্থায় মশার জাত নির্ধারণের জন্য ফাদ গুলোকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে আদ্রতা, সময়, তাপমাত্রা, ও মশা প্রবাহের সময়ের আলো আলোর স্তরের মত অন্যান্য তথ্য পাওয়া গেছে।

তাই মাইক্রোসফটও হ্যারিস কাউন্টিকে মশা এই পরিবেশ মশার আচরণ সম্পর্কে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। জলবদ্ধতা,গাছপালা,ও কাঠামো কম্পিউটার ছবি বিশ্লেষণ করবে যাতে মশার বেশি ঘনত্বপূর্ণ স্থান নির্ধারণ করা যায়। ড্রেন নিয়মিত এলাকা পরিদর্শন করবে আর কোন পরিবর্তন হলেও মশা সনাক্তকরণে চিহ্নিত করতে সাহায্য করবে গবেষক জ্যাকসন অভিমত প্রকাশ করেন যে ফাদগুলোর মশা চিহ্নিত করার ক্ষমতা ল্যাব পরীক্ষা নিশ্চিত করেছে এবং মাঠে কাজ করেও এই পরীক্ষা। সক্ষম।

Post a Comment

0 Comments