কম্পিউটারের কিছু সমস্যা এবং সমাধান

Some computer problems and solutions

উইন্ডোজ ওপেন হচ্ছে না।


কম্পিউটারের উইন্ডোজ ওপেন হচ্ছে না। ডেস্কটপ আসার আগেই রিস্টার্ট হয়।

সমাধান- এর প্রধান সমস্যা কোন কারণে অপারেটিং সিস্টেম এর ফাইল মিসিং হয়েছে। এক্ষেত্রে বারবার রিস্টার্ট হয়ে থাকে। এজন্য নতুন করে উইন্ডোজ সেটআপ কিংবা রিপেয়ার দিয়ে সমাধান করতে হবে। 

কম্পিউটার রিস্টার্ট হয়


যে কোন প্রোগ্রাম ওপেন করলে কম্পিউটার রিস্টার্ট হয়, কন্ট্রোল প্যানেল কিংবা কনফিগারেশন ওপেন করা যায় না এবং ফোল্ডারের ভিতরে একই ফোল্ডারের সেম কপি তৈরী হয়।

সমাধান- সম্পূর্ণ ব্যপারটি হয় ভাইরাস জনিত কারণে। এজন্য ক্যাসপারস্কাই বা ভালো কোন এন্ট্রিভাইরাস ইন্সটল করে দেখতে পারেন সমাধান না হলে নতুন করে উইন্ডোজ সেটআপ দিতে হবে। সেটআপের পরপরই এন্টিভাইরাস দিয়ে কাজ করতে হবে। 

উইন্ডোজ ওপেন হচ্ছে না


কম্পিউটারের উইন্ডোজ ওপেন হচ্ছে না। ডেস্কটপ আসার আগেই এরর মেসেজ আসে।

সমাধান-এর প্রধান সমস্যা কোন কারণে অপারেটিং সিস্টেম এর ফাইল মিসিং হয়েছে। এক্ষেত্রে বারবার রিস্টার্ট হয়ে থাকে। এজন্য নতুন করে উইন্ডোজ সেটআপ কিংবা রিপেয়ার দিয়ে সমাধান করতে হবে।

 রিস্টার্ট হয়ে যাচ্ছে


কম্পিউটার অন করলেই কিছু লেখা এসে রিস্টার্ট হয়ে যাচ্ছে।

সমাধান-এর প্রধান সমস্যা কোন কারণে আপনার র‌্যাম। র‌্যাম ঠিকমত কাজ না করলে, বাস স্পীড এর সমন্বয় না থাকলে এক্ষেত্রে বারবার রিস্টার্ট হয়ে থাকে কিংবা কম্পিউটার চালু হয়ে হ্যাং হয়ে থাকে। এজন্য র‌্যাম পরিবর্তন করুন। 

কিছু আসে না


কম্পিউটারের ডিসপ্লে আসার পর আর কিছু আসে না।

সমাধান- কম্পিউটারের বিভিন্ন ডিভাইসের ডাটা ক্যবল চেক করে দেখতে হবে। সমাধান না হলে সকল সংযোগ চেক করে দেখতে হবে। তারপরও না হলে ধরে নিতে হবে আপনার হার্ডডিস্ক নষ্ট হয়েছে কিংবা সংযোগ পাচ্ছে না। 

গেম ওপেন হচ্ছে না


কম্পিউটার কোন গেম ওপেন হচ্ছে না।

সমাধান- আপনার গেমগুলো আবার ইন্সটল করতে হবে, গেমের ফাইল মিসিং হলে এমন হতে পারে। তাছাড়া কোন গেইম না চললে উক্ত গেমের রিজিস্ট্রেশন ফাইলটি ওপেন করে ইয়েস দিতে হবে। প্যাচ ফাইলটি সি ড্রাইভে পেস্ট করে করেতে হবে। পাশাপাশি এজিপি সহ সকল রিকোয়ারমেন্ট পূরণ হয়েছ কিনা তাও দেখার বিষয়। সবকিছু ঠিক থাকলে তাহলে গেইমটি ওপেন হবে নিশ্চিত। আর গেম চলার জন্য প্রয়োজনীয় সিস্টেম রিকোয়রম্যান্টও আছে কিনা চেক করুন। 

কাজের মাঝখানে হ্যাং


কম্পিউটারে কাজের মাঝখানে হ্যাং হয়ে থাক, আর কিছু আসে না।

সমাধান- এজন্য আপনাকে ঠিক হ্যাং অবস্থায় প্রেস করতে হবে Alt+Ctrl+Del, একটি ডায়ালগ বক্স আসবে। সেখানে টাস্ক ম্যানেজারে লগ অফ সিলেক্ট করে ইয়েস দিতে হবে। লগ অফ হয়ে আবার অন হলে কম্পিউটারের ডেস্কটপে সবকিছু আসবে। 

অনেক সময় লাগে


কম্পিউটার চালু হলে অনেক সময় লাগে ? ষ্টার্টআপে বা ডেস্কটপে একের পর এক প্রোগ্রাম ওপেন হতে থাক।

সমাধান- আপনার পিসিতে ভাইরাস জনিত সমস্যা আছে কিংবা অতিরিক্ত ফাইল অনেক জমে গেছে। সমাধানের জন্য অতিরিক্ত ফাইল মুছে ফেলুন। আর সাময়িকভাবে সমাধান চাইলে Start এ ক্লিক করে Run এ ক্লিক করুন টাইপ করুন msconfig এবং এন্টার প্রেস করুন। একটি ডায়ালগ বক্স আসবে সেখানে Startup সিলেক্ট করে সবগুলো অপশন ডিজেবল করে দিন এবং ওকে ক্লিক করুন। রিস্টার্ট করুন এবং রিস্টার্ট হওয়ার পর ডেস্কটপে একটি ডায়ালগ বক্স আসবে সেখানে টিক চিহ্ন দিয়ে ওকে করুন। সমাধান নিশ্চিত। 

অধিক স্লো হয়ে গেছে


কম্পিউটার অধিক স্লো হয়ে গেছে, যে কোন প্রোগ্রাম ওপেন হতে অনেক সময় লাগে।

সমাধান-এজন্য আপনি অপ্রয়োজনীয় কিছু প্রোগ্রাম কন্ট্রোল প্যানেল এর Add/Remove অপশন থকে রিমুভ করুন। এছাড়া সি ড্রাইভে, যেখানে ইউন্ডোজ ইন্সটল করা আছে সেখানে ইউন্ডোজ ফোল্ডার থেকে টেম্প ফাইলের সকল ফাইল ডিলীট করুন। এছাড়াও প্রিফেচ এবং হিডেন ফাইলের আইএনএফ এর সকল ফাইল ডিলীট করুন। আর সার্চ এর মাধ্যমে সকল folder.htt, desktop.ini, autorun ফাইলসমূহ ডিলীট করুন,তবে অবশ্যই Shift+Delete দিতে হবে। আশা করি আপনার পিসি অনেক ফার্স্ট হবে। পাশাপাশি অতিরিক্ত ফাইলগুলোও মুছে দিন। আরো অধিক পারফরম্যান্স পেতে র‌্যাম বাড়াতে পারেন। আপাতত ভার্চুয়াল মেমরী বাড়িয়ে রাখুন। 

বারবার রিস্টার্ট হয়


কম্পিউটারে অপারেটিং সিস্টেম ইন্সটল করার মাঝখানে কম্পিউটার বারবার রিস্টার্ট হয় কিংবা সেটআপ অর্ধেক হয়ে আটকে থাকে।

সমাধান-এর প্রধান কারণ হচ্ছে র‌্যাম। আপনাকে র‌্যাম চেঞ্জ করতে হবে। র‌্যামের বাস স্পীড সামঞ্জস্যপূর্ণ না হলে ইউন্ডোজ সেটআপ হবে না। 

বেশী সময় লাগে


কম্পিউটার চালু হতে বেশী সময় লাগে এবং এরর ম্যাসেজ আসে।

সমাধান-আপনার সমস্যা সমাধানের জন্য র‌্যাম বাড়াতে পারেন। এছাড়াও অন্যান্য ডিভাইস জনিত সমস্যা থাকতে পারে। সবগুলো চেক করে দেখুন। বায়োস থেকে পাওয়র অন সেলফ টেস্ট ডিজেবল করে দিন। অতপর সেভ করুন। 

এরর ম্যাসেজ আসে


কম্পিউটার অন হওয়ার পর একের পর এক এরর ম্যাসেজ আসে। কোন প্রোগ্রাম ওপেন করা যাচ্ছে না।

সমাধান-এরর মেসেজ Disable করে রাখুন, অতিরিক্ত ফাইল মুছে ফেলুন, অপ্রয়োজনীয় সফটওয়ার রিমুভ করুন। স্টার্টআপের পোগ্রাম অফ করুন। তাতে কাজ না হলে আবার উইন্ডোজ দিন। এরর মেসেজ Disable কিভাবে করবেন তা পূর্বের লেখায় আলোকপাত করা হয়েছে। 

Folder Option নেই


কম্পিউটারের উইন্ডোতে Folder Option নেই। কনফিগারেশন ফাইল ওপেন করলে কম্পিউটার রিস্টার্ট হয়।

সমাধান-আপনার পিসিতে ভাইরাস আক্রমণ করেছে। এজন্য আপনাকে অপারেটিং সিস্টেম রিপেয়ার সেটআপ না দিয়ে সম্পূর্ণ নতুন করে সেটআপ দিতে হবে। 

ডিভাইস লোড হয়না


কম্পিউটার অন হওয়ার পর ডিভাইস লোড হয়না, টিভি কার্ড বা ল্যান কার্ড কাজ করছে না।
 সমাধান- আপনার পিসিতে Driver.sys ফাইলটি মিসিং হয়েছে। এজন্য আপনি কম্পিউটার অন হওয়ার পর স্ক্যান ডিস্ক চালু করুন। যা করতে হবে, সি ড্রাইভের রাইট বাটন ক্লিক করে প্রপার্টিজ এ যান। একটি ডায়ালগ বক্স আসবে সেখানে Scan এ ক্লিক করুন, Check Now ক্লিক করুন। রিস্টার্ট করে স্ক্যান এর জন্য সময় দিন। আশা করি সমাধান হবে। না হলে উইন্ডোজ ইন্সটল ছাড়া উপায় নেই। 


ইউ এস বি পোর্টে


কম্পিউটারের ইউ এস বি পোর্টে পেন ড্রাইভ লাগালে নিউ হার্ডওয়্যার ফাউন্ড, পেন ড্রাইভ পায় না। আর পেলেও ওপেন করতে গেলে স্টার্ট আপে একটি নোটপ্যাড অন্য ভাষায় ওপেন হয়ে যায়। পেন ড্রাইভ ওপেন করলে ডাটা এডমিনিসট্রেটরসহ এক্সট্রা ফোল্ডার দেখায়।

সমাধান- আপনার পিসিতে ইউএসবি ড্রাইভার ফাইল মিসিং হয়েছে, অপারেটিং সিস্টেম রিপেয়ার করতে হবে। আর স্টার্টআপে একটি ফাইল তেরী হওয়া এখন সাধারণ ব্যাপার সকল পেন ড্রাইভ এর ক্ষেত্রেই। এটি একটি ছোট খাট ভাইরাসের মত। তবে এ থেকে রেহায় পেতে হলে সবসময় পেনড্রাইভ ওপেন না কের এক্সপ্লোর করুন। রাইট বাটন ক্লিক করে Expand এ ক্লিক করুন। এক্সট্রা ফাইল সবই ভাইরাস এর অন্তর্ভুক্ত। সবচেয়ে ভালো হবে এক্সট্রা ফাইলগুলো ওপেন না করে সাথে সাথে ডিলীট করাটাই, তবে অবশ্যই Shift+Delete দিতে হবে। 

শর্টকাট হয়ে যায়


কম্পিউটারে পেন ড্রাইভ লাগিয় ওপেন করলে সব শর্টকাট হয়ে যায়।

সমাধান-উইন্ডোজ সেটআপ দিয়ে এ সমস্যা সমাধান যোগ্য। এ সমস্যাটি এখন সবচেয়ে বেশী লক্ষণীয়। এক্ষেত্রে ফোল্ডার অপশন থেকে ভিউ থেকে শো হিডেন ফাইল সিলেক্ট করে আপনার সকল ফাইল দেখতে পারেন আর বাকী শর্টকাটগুলো মুছে ফেলুন। আরো বিস্তারিত সমাধান আমার পূর্বের লেখায় আছে।

ফাইল হিডেন দেখায়


কম্পিউটারে পেন ড্রাইভ লাগিয়ে ওপেন করলে সব ফাইল হিডেন দেখায়।

সমাধান-উইন্ডোজ সেটআপ দিয়ে এ সমস্যা সমাধান যোগ্য। এক্ষেত্রে ফোল্ডার অপশন থেকে ভিউ থেকে শো হিডেন ফাইল সিলেক্ট করে আপনার সকল হিডেন হওয়া ফাইল দেখতে পারেন। আইরিসেট নামক সফটওয়ার দিয়ে হিডেন ফাইল এর এট্রিবিউট পরিবর্তন করতে পারেন। 

Post a Comment

0 Comments